বুধবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং, রাত ১:৩৮

কাতারিদের সংসারে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন বিশ্বসুন্দরী ইভানা নল

অনলাইন ডেস্ক  বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ান এক নারী এসে কাতারিদের সংসারে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন। ক্রোয়েশিয়ার সাবেক বিশ্বসুন্দরী ইভানা নল। খোলামেলা পোশাকে দোহায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। যেখানেই যাচ্ছেন তাকে নিয়ে কৌতূহলের শেষ নেই আলখেল্লা পরা কাতারিদের।

হোটেলের রেস্টুরেন্টে গেলেও এমন পোশাক গায়ে চাপিয়ে ঢুকছেন, যে না দেখতে চাইলেও আপনি চোখ রাখবেন। সেটা না হয় হোটেলের মধ্যেই থাকে। কিন্তু স্টেডিয়ামে কীভাবে যান এমন খোলা পোশাকে। টপলেস ইভানা নল নাকি বলেছেন এখানে (কাতার) আসার আগেই শুনেছি দোহায় গরম, গরমের কারণে টেকাই দায়। আমার যদি গরম লাগে তাহলে আমি কেন সোয়েটার গায়ে বের হব।

১৯৯২ সালে জার্মানিতে জন্ম নেওয়া ইভানা ২০১৬ সালে মিস ক্রোয়েশিয়া খেতাব জয়ী এই নারীর নানা বিতর্কিত বিষয় কাতারে ছড়িয়ে গেছে। কাতারের নারীরাও জেনেছেন বয়ফ্রেন্ড নেই তার এবং অবিবাহিত। তার ছবি দেখেছেন। তাতেই চেনা হয়ে গেছে ইভানা নলকে।

কাতারিরা পরিবার নিয়ে ফুটবল খেলা দেখতে আসেন। চিনতে পারছেন স্টেডিয়ামে ঢুকলেই। যেখানে যেখানে ক্রোয়েশিয়ার খেলা হয়েছে সেখানেই গিয়েছেন ইভানা নল। আর সঙ্গে সঙ্গে টিভির ক্যামেরার লেন্সেও ইভানার শরীরে। কারণ শরীরটা টেনেটুনে ঢেকে রাখার মতো তার গায়ে ছোট ছোট যেসব কাপড় রয়েছে তার পুরোটাই ক্রোয়েশিয়ার পতাকার রঙে। ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকরা দলের চেয়ে ইভানার দিকেই ফোকাস বেশি। দর্শক তাকে দেখে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। উষ্ণতা ছড়ানো স্বল্পবসনার এই নারীর সঙ্গে ছবি তুলতে খেলা ছেড়ে দৌড়ে যাচ্ছেন তরুণ। এমন দৃশ্য যখন স্টেডিয়ামের জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখানো হয় তখন অন্যদেরও চোখটাও খেলার মাঠ থেকে খোলামেলা ঐ নারীর দিকে চলে যায়।