বুধবার, ২৩শে জুন, ২০২১ ইং, সকাল ৬:১৫

পরকীয়ায় রাজি না হওয়ায় স্বপ্নাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়

ডেস্ক রিপোর্ট  গাজীপুরের টঙ্গীতে পরকীয়ায় রাজি না হওয়ায় নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় মৌলভীবাজার থেকে প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ। হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতার আসামি সৈজউদ্দিন খান (৭০) ঝালকাঠির তোরাব আলী খানের ছেলে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার হাসিবুল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

উপপুলিশ কমিশনার হাসিবুল আলম বলেন, নিহত স্বপ্না রায় বিভিন্ন মেসে রান্না করা খাবার সরবরাহ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

গত ১৬ মে সকালে স্বপ্না রায় বাসা থেকে কাজের উদ্দেশ্যে বাইর হয়। এ সময় টঙ্গী পূর্ব থানার দিন দত্তপাড়া হাউস বিল্ডিং শাহাদাতের বাড়ির সামনে এলে আগে থেকেই ওঁৎ পেতে থাকা আসামিরা ধারালো চাকু দিয়ে স্বপ্নাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী উদ্ধার করে টঙ্গী শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পরে নিহত নারীর মেয়ে তুলি বাদী হয়ে টঙ্গী পূর্ব থানায় মামলা করলে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অপরাধ দক্ষিণ বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার ইলতুৎমিস ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন করে মূল আসামিকে গ্রেফতার দেখান।

পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে মৌলভীবাজার বড়লেখা থানাধীন এলাকা থেকে আসামি সৈজউদ্দিনকে গ্রেফতার করে। হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়। আসামিকে গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন টঙ্গী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার পীযূষ কুমার দে, টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাভেদ মাসুদ, পরিদর্শক (তদন্ত) মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সজল ইসলাম প্রমুখ।