সোমবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ইং, রাত ১:২২
শিরোনাম :
জানুয়ারি মাসে মাদক উদ্ধারে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করলো হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিওন ভাষা শহিদদের প্রতি অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম এর শ্রদ্ধা নিবেদন কুমিল্লা রিজিয়নের খাটিহাতা হাইওয়ে থানায় বিশেষ কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত পার্বতীপুরে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত: রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রংপুর স্মার্ট বিচার বিভাগ গড়ে তোলার প্রত্যয় প্রধানমন্ত্রীর রমজানে পণ্যের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সালমান এফ রহমান অবসরের ৬ মাসের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অবসর ভাতা প্রদানের নির্দেশ পটুয়াখালীতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দুর্নীতি প্রতিরোধে করণীয় শীর্ষক ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন অনুষ্ঠিত চরকাউয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় আনসার সদস্য সহ আহত ৩ বরিশালে ক্ষদ্র মৎস্যজীবী জেলেদের ৭দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে বিক্ষোভ

বিএনপি সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে

ডেস্করিপোর্ট  ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশে দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যাবেন বলে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এ বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, বিএনপি সমাবেশের নামে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করলে ভুল করবে। ১০ ডিসেম্বর যদি খালেদা জিয়া সমাবেশে যোগ দেন তা হলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর রাজারবাগে ‘নারী পুলিশের গৌরবময় যাত্রা ও অর্জন ১৯৭৪-২০২২’ প্রতিপাদ্যে বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন নেটওয়ার্কের বার্ষিক প্রশিক্ষণ সম্মেলন-২০২২ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সুন্দর পরিবেশের জন্যই তাদের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। বিএনপি দুটি জায়গার কথা বলেছে— সোহরাওয়ার্দী ও মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে (সংসদ ভবনের সামনে)। তাদের দাবির বিষয়টি লক্ষ্য রেখেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

যদি সমাবেশে খালেদা জিয়া যোগদান করেন, তার জামিন বাতিল হবে কিনা সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে শর্তসাপেক্ষে আদালত জামিন দিয়েছেন। তিনি যদি সমাবেশে যান, সে বিষয়ে আদালত ব্যবস্থা নেবেন।
সরকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে। কিন্তু বিএনপি বলছে তারা নয়াপল্টনেই সমাবেশ করবে। এ বিষয়ে এক প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা চাই অরাজক পরিস্থিতি যাতে না হয় তার ব্যবস্থা করতে। বিএনপি যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে সমাবেশ করতে পারে, সে জন্য সোহরাওয়ার্দীতে অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

‘আমরা সবসময় বলে আসছি— আপনাদের (বিএনপি) পার্টির যে কোনো কার্যক্রম করতে চান অবশ্যই করবেন। এটি রাজনৈতিক অধিকার। কিন্তু আপনারা কোনোক্রমেই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি করতে পারবেন না এবং তার চেষ্টাও করবেন না’—যোগ করেন আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বিএনপি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে চাচ্ছে না, সে ক্ষেত্রে আপনাদের ভূমিকা কী হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, আপনারা নিশ্চয়ই জানেন নয়াপল্টনের রাস্তার অবস্থা। ওই রাস্তায় তারা সমাবেশ করবে আর বলছেন লাখ লাখ লোকের সমাগম করবেন। তা হলে ওই রাস্তার অবস্থা কী হবে? এসব বিষয় চিন্তা করেও তাদের একটা বড় জায়গায় সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি একটি কথা স্পষ্ট করে বলতে চাই— বিএনপি অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে ভুল করবে।