রবিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, সকাল ৮:৫২
শিরোনাম :

স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূজা উদযাপন করুন: এসপি খাইরুল আলম

ডেস্করিপোর্ট  কুষ্টিয়া জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোঃ খাইরুল আলম বলেছেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। ধর্মচর্চা মানুষের মানবিক মূল্যবোধকে জাগ্রত করে। আমরা যে যে ধর্মের অনুসারীই হই না কেন, প্রকৃত ধর্মানুশীলন মানুষের আত্নার শক্তিকে জাগ্রত করে। মনে প্রশান্তি আনে, মানুষকে মহৎ করে তোলে। বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির একটি অনন্য উদাহরণ। এখানে মানুষ স্বাধীন ভাবে যে যার ধর্ম নির্বিঘ্নে পালন করতে পারে। হিন্দু ধর্মের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ সময়ে যেহেতু এক সাথে একাধিক মানুষের সমাগম ঘটে তাই পূজা চলাকালীন সময়ে মন্ডপে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূজা উদযাপন করুন।

সোমবার (১১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টায় কুষ্টিয়া মডেল থানাধীন নব যুবসংঘ আড়ুয়াপাড়া দুর্গাপূজার মহাছষ্ঠী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার কুষ্টিয়া মোঃ খাইরুল আলম এবং জেলা প্রশাসক কুষ্টিয়া মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত নব যুবসংঘ আড়ুয়াপাড়া দুর্গাপূজার মহাছষ্ঠী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এবং শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউর মন্দির, এন এস রোড, কুষ্টিয়া ও শিব শক্তি মন্দির, দত্তপাড়া, কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনের সময় শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন কমিটির নের্তৃবৃন্দ ও মন্ডপে আগত ভক্তবৃন্দের সাথে মতবিনিময় কালে পুলিশ সুপার কুষ্টিয়া এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, সবাই যাতে নিরাপত্তা সহকারে নির্বিঘ্নে হিন্দু ধর্মের বৃহত্তম উৎসব দুর্গাপূজা উদযাপন করতে পারেন সে জন্য পুলিশ সার্বক্ষনিক পালাক্রমে ডিউটি করে যাচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল কার্যক্রম করার জন্য তিনি সবাইকে অনুরোধ করেন। প্রত্যেক পূজা মন্ডপে প্রবেশ এবং বের হওয়ার পথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ব্যাবস্থা করতে হবে; কোন রকম পটকা বা আতশবাজি ফোটানো যাবেনা। আইন শৃংখলা বিঘ্নিত হয় এমন কিছু করা যাবেনা। পূজা মন্ডপের যেকোন সমস্যার বিষয়ে পুলিশকে অবহিত করবেন। আমরা জনগণের সেবায় সদা নিয়োজিত আছি।

পুলিশ সুপার কুষ্টিয়া আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা – ২০২১ উদযাপন এবং জেলার সকল পূজামন্ডপের সার্বিক নিরাপত্তা রক্ষার্থে প্রত্যেক পূজা মন্ডপ কেন্দ্রিক পর্যাপ্ত সংখ্যক ভলান্টিয়ার রাখা এবং পর্যায় ক্রমে তাদের ডিউটি করানোর অনুরোধ করেন। এ ছাড়াও তিনি পূজা মন্ডপে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার জন্য সক্ষমতা অনুযায়ী সিসিটিভি ক্যামেরা রাখার জন্য বলেন। কুষ্টিয়া জেলায় এ বছর ২৫২ টি পূজা মন্ডপ তৈরী করা হচ্ছে, এর মধ্যে কুষ্টিয়া মডেল থানা এলাকায় ৫৫টি, কুমারখালী থানা এলাকায় ৫৯টি, খোকসা থানা এলাকায় ৬৩টি, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা এলাকায় ২৭টি, মিরপুর থানা এলাকায় ২৩টি, ভেড়ামারা থানা এলাকায় ৯টি ও দৌলতপুর থানা এলাকায় ১৬টি পূজা মন্ডপে দুর্গাপূজা উদযাপন করা হবে। জেলা পুলিশ কুষ্টিয়ার পক্ষ থেকে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে টহল ও গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত আছে বিসর্জন সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকবে বলে পুলিশ সুপার কুষ্টিয়া মোঃ খাইরুল আলম বলেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন মোঃ আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল, এডিসি রেভিনিউ মোঃ সিরাজুল ইসলাম, ইউএনও সদর, জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেটবৃন্দ, মোঃ ছাব্বিরুল আলম, ওসি কুষ্টিয়া মডেল থানা, ওসি ডিবি, ডিআইও, আরওআই মোঃ শহীদুজ্জামান, পূজা উদযাপন কমিটির সদস্যবৃন্দ ও পূজা দেখতে আসা অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।