মঙ্গলবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, সকাল ৬:১৩
শিরোনাম :
আল্লামা শফীকে নিয়ে কটূক্তি, রিমান্ডে আলাউদ্দিন জিহাদী কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেল থেকে ট্রলার মালিকের লাশ উদ্ধার বরিশাল কেমিস্ট ল্যাবরেটরিজের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা মঠবাড়িয়ায় ফুসকা খাওয়ানো কথা বলে দুই কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ! গৌরনদীতে ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শনে ডিডিএলজি বরিশালে সিআইডির ডিআইজিকে ডিসি খাইরুল আলমের ফুলেল শুভেচ্ছা আমরা সৎভাবে স্বাধীনভাবে জনগনের সেবা করতে চাই: ডিসি খাইরুল আলম নামাজে সব মুসল্লির মাস্ক পরা নিশ্চিতের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর অধিদফতরের গাড়িচালক মালেক ১৪ দিনের রিমান্ডে প্রধানমন্ত্রীর কাছে নারায়নগঞ্জে মসজিদে হতাহতদের পরিবারের ৬ দফা দাবি

রাবিতে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ,আহত ১০

রাবি প্রতিনিধি  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে দর্শন বিভাগের দুই বর্ষের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুই শিক্ষার্থীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মঙ্গলবার বিকেল চারটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে এই ঘটনা ঘটে। আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে আন্ত:বিভাগ ক্রিকেট খেলায় দর্শন বিভাগের সঙ্গে ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের ম্যাচ চলছিল। এসময় দর্শন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একই বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে একই বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জীবন মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। তখন মাস্টার্সের এক শিক্ষার্থী জীবনের গায়ে হাত তোলেন বলে জানা যায়। বিভাগের শিক্ষকরা বিষয়টি সমাধান করে মাঠ থেকে শিক্ষার্থীদের নিয়ে আসেন।

এরপর বিকেলে জীবন লোক প্রশাসন বিভাগে তার কয়েকজন বন্ধুকে ডেকে নিয়ে ডিনস্ কমপ্লেক্সের পাশে দর্শন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম ও শেখ সাদীকে মারধর করেন। সাইফুল ও শেখ সাদীর সহপাঠীরা বিষয়টি জানতে পেরে লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের ওপর চড়াও হন। এসময় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থানরত মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা মারধর থামাতে গেলে তারাও মারধরের শিকার হন।

মারামারির এই ঘটনায় লোক প্রশাসন, দর্শন ও মার্কেটিং বিভাগের প্রায় ১০জন শিক্ষার্থী আহত হন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত হন দর্শন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সাইফুল ও শেখ সাদী।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান বলেন, মারামারির বিষয়ে শুনে আমি ঘটনাস্থলে যাই। পুলিশের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মিমাংসা করে নিতে বলা হয়েছে।

এদিকে মারামারির ঘটনায় ৯ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে দর্শন বিভাগের শিক্ষকরা। বিভাগের অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামানকে আহ্বায়ক করে এ কমিটি গঠন করা হয়।

এর আগে গতকাল সোমবার ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ইসলামিক স্টাডিজ এবং পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।