রবিবার, ১২ই জুলাই, ২০২০ ইং, সন্ধ্যা ৬:৫৯

নন-এমপিও শিক্ষকদের ৫০০০, কর্মচারীদের ২৫০০ টাকা প্রণোদনা দেয়া হবে

ডেক্সরিপোর্ট  বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত নন-এমপিও ১ লাখ ৫ হাজার ৭৮৫ জন শিক্ষক-কর্মচারীর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪৬ কোটি ৬৩ লাখ ৩০ হাজার টাকার বিশেষ অনুদান প্রদান করেছেন।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৬৪ জেলার ৮ হাজার ৪৯২টি স্কুল ও কলেজের নন-এমপিও ৮০ হাজার ৭৪৭ জন শিক্ষকের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা এবং ২৫ হাজার ৩৮ জন নন-এমপিও কর্মচারীর প্রত্যেককে ২ হাজার ৫শ’ টাকা করে দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী তার ‘বিশেষ অনুদান’-এর খাত থেকে এই টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। ৬৪ জন জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে তা বণ্টন করা হবে।

জানা গেছে, একইভাবে কারিগরি ও মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে আর্থিক অনুদান দেয়া হবে। এ লক্ষ্যে একটি প্রস্তাব কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগ থেকে পাঠানো হয়েছে অর্থ বিভাগে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের জানান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের তালিকাভুক্ত ইআইএনধারী (বোর্ডের বৈধ প্রতিষ্ঠান শনাক্তকরণ নম্বর) নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিশাল সংখ্যক শিক্ষক-কর্মচারীর হালনাগাদ তথ্যাদিসংগ্রহ করে ডাটাবেজ তৈরি করা হয়। এরপর তা স্থানীয় প্রাশাসনের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করা হয়। সেই তালিকার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রীর ‘বিশেষ অনুদান’ খাত থেকে প্রাপ্ত অর্থ জেলা প্রশাসকদের কাছে সংশ্লিষ্ট নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অনুকূলে চেক/ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। চলতি মাসের মধ্যে এ অর্থ বিতরণ করবেন তারা।

টেকনিক্যাল অ্যাডুকেশন কন্সোর্টিয়াম অব বাংলাদেশের (টেকবিডি) সভাপতি প্রকৌশলী আবদুল আজিজ বলেন, এই করোনা মহামারীকালে নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অনুকূলে বিশেষ অনুদান প্রদানের উদ্যোগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সহায়তার জন্যও আমরা আবেদন করেছি। তা গুরুত্ব দিয়ে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্যও সহায়তার অর্থ বরাদ্দ হচ্ছে। এমন উদ্যোগের জন্য সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-কর্মচারী এবং সর্বসাধারনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি ও সুরক্ষার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক গত ১৬ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও ‘শিক্ষা নিয়ে গড়ব দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ শ্লোগানকে ধারণ করে এই দুর্যোগকালীন পরিস্থিতিতেও শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক ‘সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন’-এর মাধ্যমে ‘আমার ঘরে, আমার স্কুল’ প্রোগ্রাম চালু করে পাঠদান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকগণ ডিজিটাল তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে নিজ নিজ এলাকায় শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। করোনা মহামারীর এই দুর্যোগকালীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় আর্থিক সংকটে থাকা নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ‘বিশেষ অনুদান’-এর খাত থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সমগ্র শিক্ষা পরিবার অত্যন্ত কৃতজ্ঞ।