শুক্রবার, ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং, বিকাল ৩:৩১

শেবাচিমে করোনার উপসর্গ নিয়ে ৫ রোগীর মৃত্যু

ডেক্সরিপোর্ট  মহামারী করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম)হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে শুক্রবার ৮ ঘণ্টার মধ্যে আলদা আলদা সময়ে তাদের মৃত্যু ঘটে। শনিবার সকালে হাসপাতালের পরিচালক মো. বাকির হোসেন ৫ রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

হাসাপাতালের চিকিৎসকেরা জানান- শক্রবার বেলা ২টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে মারা যাওয়া ওই পাঁচ রোগীর অবস্থায়ই খুব খারাপ ছিল। মারা যাওয়ার পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের করোনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট আসার আগে বলা সম্ভব হচ্ছে না তাদের কেউ করোনা আক্রান্ত ছিলেন কি না।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বরিশালের উজিরপুরের এক ব্যক্তি (৫০) মারা যান। রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি করোনার উপসর্গ জ্বর, শ্বাসকষ্ট নিয়ে এ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

এর আগে রাত সোয়া ৯টার দিকে বরিশাল নগরের এক নারী (৪৫) মারা যান। তিনি গতকাল সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। গতকাল সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বরিশাল নগরের এক ব্যক্তি (৪৫)। ২৩ জুন সন্ধ্যায় তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

এর আগে গতকাল সন্ধ্যা ৬টার কিছুক্ষণ পরে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে মারা যান বরগুনার বামনা উপজেলার এক বৃদ্ধ (৮০)। তিনি ২৩ জুন বেলা ২টা ১০ মিনিটে করোনা উপসর্গ নিয়ে এ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

একই দিন বেলা দুইটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বরিশাল শহরের এক বৃদ্ধ (৬৩)। তিনি বেলা একটার দিকে জ্বর, শ্বাসকষ্ট নিয়ে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

হাসপাতাল পরিচালক ডা. বাকির হোসেন জানান, গত ২৮ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ৮৬ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৩৬ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন।’