সোমবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ইং, রাত ১:১৪
শিরোনাম :
জানুয়ারি মাসে মাদক উদ্ধারে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করলো হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিওন ভাষা শহিদদের প্রতি অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম এর শ্রদ্ধা নিবেদন কুমিল্লা রিজিয়নের খাটিহাতা হাইওয়ে থানায় বিশেষ কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত পার্বতীপুরে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত: রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রংপুর স্মার্ট বিচার বিভাগ গড়ে তোলার প্রত্যয় প্রধানমন্ত্রীর রমজানে পণ্যের দাম বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: সালমান এফ রহমান অবসরের ৬ মাসের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অবসর ভাতা প্রদানের নির্দেশ পটুয়াখালীতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দুর্নীতি প্রতিরোধে করণীয় শীর্ষক ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন অনুষ্ঠিত চরকাউয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় আনসার সদস্য সহ আহত ৩ বরিশালে ক্ষদ্র মৎস্যজীবী জেলেদের ৭দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে বিক্ষোভ

বরিশালে শেবাচিম হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া শিশু উদ্ধার: নারী গ্রেপ্তার

ডেস্করিপোর্ট  বরিশাল শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের লেবার ওয়ার্ড থেকে নবজাতক শিশু চুরি করে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এক নারীকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

সেইসাথে নবজাতক শিশুটিকে উদ্ধার করে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের সহায়তায় তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। শেবাচিম হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, সন্তান প্রসবের জন্য দুদিন আগে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের লেবার ওয়ার্ডে ভর্তি হন নগরীর কাউনিয়া বিসিক রোড এলাকার বাসিন্দা হেলাল বেপারীর স্ত্রী কাকলী বেগম।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে সিজারের মাধ্যমে এক পুত্র সন্তান ভূমিষ্ট হয় কাকলী বেগমের। যার নামও রাখা হয় মাহাদি। কাকলী বেগম জানান, বুধবার (১৮ নভেম্বর) ১১ টা থেকে ১২ টার মধ্যে কোন এক সময় শিশুটিকে হাসপাতালের ওয়ার্ডের ভেতর তার বিছানায় রেখে ননদ রুনু বেগমকে নিয়ে টয়লেটে যান। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে বিছানায় আর শিশু সন্তানটিকে দেখতে পাননি।

সাথে সাথে ওয়ার্ডের ভেতর মাহাদিকে খোঁজাখুঁজি শুরু করি কিন্তু পাইনি। এরপর বিষয়টি ওয়ার্ডের দায়িত্বরত চিকিৎসক, নার্স, স্টাফ ও আমাদের স্বজনদের জানাই। ঘন্টা পার হয়ে গেলেও আর সন্তানের খোঁজ পাইনি।

এদিকে শিশুটি নিঁখোজ হওয়ার অল্প সময়ের ব্যবধানে নগরের আমানতগঞ্জ পানির ট্যাংকি এলাকায় সন্দেহের বসে এক শিশুসহ এক নারীকে আটক করে স্থানীয়রা।

উদ্ধারকাজে সহায়তা প্রদানকারী বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের সচিব মোঃ শাহাদাৎ হোসেন মাসুম বলেন, ঘটনার সময় আমি বাসার দিকে যাচ্ছিলাম।

বাসার গলির ভেতর প্রবেশ করতেই এক নারীকে ওড়না দিয়ে কিছু ঢাকার চেষ্টা করতে দেখি। তখন তাকে সন্দেহের বসে কি করছেন জানতে চাইলে ওড়নার কাপরের ভেতর থেকে শিশুর কান্নার শব্দ পাই।

এরপর ওই শিশুটি পেয়েছে কোথায় এমন প্রশ্ন করলে নারী জানান, এটি তার সন্তান। এরপর আরও কিছু প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, হাসপাতাল থেকে তাকে কারা যেন বাচ্চাটিকে দিয়েছেন।

খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক আমানতগঞ্জ ফাঁড়ি থেকে পুলিশ এসে শিশুটিসহ ওই নারীকে তাদের হেফাজতে নেয়। এ বিষয়ে অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোঃ ফজলুল করিম বলেন, আমানতগঞ্জ পানির ট্যাংকি এলাকা থেকে মাসুম নামক এক ব্যক্তির সহায়তায় শিশুটিকে উদ্ধার করে পুলিশ সদস্যরা। তখন ওই শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে যাওয়া নারী শাহিনুর বেগমকেও আটক করা হয়।

পরবর্তীতে দ্রুত সময়ের মধ্যে উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা, বিপিএম (বার) এর উপস্থিতিতে শেবাচিম হাসপাতালে গিয়ে শিশুটিকে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয়া হয়।

আর আটক বরিশাল সদর উপজেলার চরহোগল গ্রামের আনিচ মিয়ার স্ত্রী শাহিনুর বেগমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীণ রয়েছে বলে জানান তিনি।