বুধবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, বিকাল ৫:৪৪

লাইসেন্স ছাড়া কোনো প্রাইভেট ক্লিনিক বা হাসপাতাল চালানো যাবে না

ডেক্সরিপোর্ট  স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন,লাইসেন্স ছাড়া কোনো প্রাইভেট ক্লিনিক বা হাসপাতাল চালানো যাবে না।মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেয়া হবে না।

রোববার দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃক নতুন একশ ভেন্টিলেটর মেশিন হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে আমেরিকার রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের কাছে ১০০টি ভেন্টিলেটর হস্তান্তর করেন।

এ সময় বেসরকারি হাসপাতালের লাইসেন্স নবায়ন করা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের সব প্রাইভেট ক্লিনিক, হাসপাতালকে সরকারের দেয়া নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই লাইসেন্স গ্রহণের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত হতে হবে। লাইসেন্স ছাড়া কোনো প্রাইভেট ক্লিনিক বা হাসপাতাল চালানো যাবে না।

তিনি বলেন,দেশের সব হাসপাতাল ও ক্লিনিক পরিদর্শন করা হবে। যাদের লাইসেন্স নাই, সেগুলো বন্ধ করে দেয়া হবে। সেসব প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে, তাদের নবায়ন করার সময় দেয়া হবে। যেখানে যন্ত্রপাতি নেই সেখানেও যন্ত্রপাতি বসানোর জন্য সময় দেয়া হবে। ওই সময়ের মধ্যে যন্ত্রপাতি বসাতে না পারলে হাসপাতাল বন্ধ করে দেয়া হবে। মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেয়া হবে না।

অনুষ্ঠানে করোনাকালীন দুঃসময়ে বাংলাদেশ আমেরিকায় প্রচুর পরিমাণে পিপিই সরবরাহ করেছে বলে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার। তিনি ভবিষ্যতে দুদেশের সম্পর্ক আরও মজবুত হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- ইউএসএইডের ডেপুটি মিশন ডিরেক্টর জন এলিও, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিল।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ মেডিসিন সোসাইটির মহাসচিব প্রফেসর আহমেদুল কবীর।