সোমবার, ৩রা অক্টোবর, ২০২২ ইং, বিকাল ৩:২৫

অচলাবস্থায় পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর

অনলাইন ডেস্ক  ইসলামাবাদ পাকিস্তান-অধিকৃত কাশ্মীর (পিওকে) ও গিলগিট বাল্টিস্তানকে সাংবিধানিকভাবে একীভূত করার জন্য অনেক দিন ধরে ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে দেশটির সাংবাদিক, আইনজীবী ও চিন্তাবিদদের সঙ্গে এই অঞ্চলের মানবাধিকার কর্মীরা ইসলামাবাদ প্রেসক্লাবে একটি ইভেন্টে অধিকৃত অঞ্চলের অস্থির মানবাধিকার পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায় ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম স্টেটসম্যান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউনাইটেড কাশ্মীর পিপলস ন্যাশনাল পার্টির (ইউকেপিএনপি) আয়োজিত অনুষ্ঠানটি আগে রাজধানী শহরের একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গোপন সংস্থা ও স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপের কারণে তা বাতিল করা হয়। পরে অনুষ্ঠানটি ইসলামাবাদ প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত হয়।

কাশ্মীরী ইউকেপিএনপির চেয়ারম্যান সরদার শওকত আলী জানান, তারা পাকিস্তানের জনবিরোধী, জম্মু ও কাশ্মীর ও শান্তি বিরোধী নীতির মাধ্যমে ভীত হবেন না। নিপীড়ন, অন্যায়, চরমপন্থা, অসহিষ্ণুতা, সহিংসতা ও ঘৃণার বিরুদ্ধে তাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরও বলেন, পাকিস্তান জম্মু ও কাশ্মীর আক্রমণ করে এবং স্ট্যান্ড-স্টিল চুক্তি লঙ্ঘন করে হাজার হাজার নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে। যতক্ষণ না কাশ্মীর দখলের এই পাকিস্তানি আবেশের অবসান না হয় ততক্ষণ জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণ ভোগান্তি পোহাতে থাকবে।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী পিওকে ও গিলগিট বাল্টিস্তানে বেশ কয়েকটি জমি দখল করেছে। এক ঘোষণায়, ইউকেপিএনপি এই অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান জমি দখলের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। সেখানে সামরিক, নন-স্টেট অ্যাক্টর এবং অন্যান্য প্রভাবশালী ব্যক্তিরা বেআইনি ও জোরপূর্বকভাবে ব্যক্তিগত ও সরকারি সম্পত্তি, পাহাড়ের চূড়া ও মুজাফফরাবাদ জেলার পিয়ার চানসি হিল টপের মতো পর্যটন রিসোর্ট দখল করছে। ফলে রাজ্যে ক্রমবর্ধমান অস্থিরতা বিরাজ করছে।